26/09/2022

ইসলামে খাবার খাওয়ার নিয়ম । খাবার খাওয়ার সুন্নত।

রাসুল( সা.) এর খাবারের সুন্নত কি কি ? ইসলামে খাবারের নিয়ম কি। খাবারের সুন্নাত সমূহ।

খাবারের আদব কি কি?  আজ এ সকল কিছুর উত্তর দেয়ার চেষ্টা করব। ইনশাল্লাহ।

১/ দুই হাতের কব্জি পর্যন্ত ধোয়া। (আবু দাউদ, হাদীস নাম্বার- ৩৭৬১) ২.

২/ দস্তরখানা বিছিয়ে খাদ্য খাওয়া। (বুখারী শরীফ, হাদীস নং- ৫৩৮৬) বি.দ্র. প্রথমে খাদ্য তথা আল্লাহর নেয়ামতের দিকে মুখামুখী  হয়ে বসা, তারপর দস্তরখানা বিছানো। (বুখারী শরীফ, হাদীস নং- 

৫৩৮৫, ৫৩৯৯) 

৩/ দস্তরখানা খুব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। এর উপর ঝুটা (উচ্ছিষ্ট খাবার) হাড্ডি ইত্যাদি না ফেলা বা তাতে পা না রাখা উচিত। (মুসলিম হাদীস নাম্বার- ২০৩৩) 

৪/  বিসমিল্লাহ পড়া।(বুখারী শরীফ, হাদীস নং- ৫৩৭৬) 

৫/. ডান হাত দিয়ে খাওয়া শুরু করা । (বুখারী, হাদীস নং- ৫৩৭৬/ মুসলিম, হাদীস নং- ২০২০)

 ৬/ খাওয়া-দাওয়ার মজলিসে বয়সের দিক দিয়ে যিনি বড় এবং বুযুর্গ, তাঁর মাধ্যমে খানা শুরু করানো। (মুসলিম, হাদীস নং- ২০১৭)

 ৭/. খাদ্য একই ধরনের হলে নিজের সম্মুখ হতে খেতে হবে ।(বুখারী শরীফ, হাদীস নং- ৫৩৭৬) 

৮/.খাদ্যের কোন অংশ যদি পড়ে যায় উঠিয়ে (প্রয়োজনে পরিষ্কার করে) খাওয়া।(মুসলিম, হাদীস নং- ২০৩৩) 

৯/. হেলান দিয়ে বা চেয়ারে দুলে দুলে না খাওয়া। (বুখারী শরীফ, হাদীস নং- ৫৩৯৮) ৯. খাদ্যের ত্রুটি বের না করা।(বুখারী শরীফ, হাদীস 

  – ৫৪০৯) 

১০/. জুতা পরিহিত থাকলে জুতা খুলে খাদ্য খাওয়া।(মুস্তাদরাকে হাকেম, হাদীস নং- ৭১২৯) 

১১. খাদ্য খাওয়ার সময় তিনভাবে বসা যায়।

 ক. দুই হাঁটু উঠিয়ে এবং পদ যুগলে ভর করে। (মুসলিম, হাদীস নং- ২০৪৪) 

খ. এক হাঁটু উঠিয়ে এবং অপর হাঁটু বিছিয়ে। (শরহুস্‌ সুন্নাহ, হাদীস নং- ৩৫৭৭) 

গ. দুই হাঁটু বিছিয়ে অর্থাৎ নামাযে মত বসে সামান্য সম্মুখ পানে ঝুঁকে আহার করা। (আবু দাউদ, হাদীস নং- ৩৭৭৩) বি.দ্র. উযরের কারণে আসন দিয়ে বসারও অনুমতি আছে সে ক্ষেত্রে সমস্যা হবে না।(সূরা নূর, আয়াত-৬১/ আল ইতহাফ, ৫ : ৪৮০) 

১২. আহার গ্রহণ শেষ হয়ে গেলে খাদ্যর পাত্রসমূহ আঙ্গুল দ্বারা ভালভাবে চেটে চেটে পরিস্কার করে খাওয়া। এতে খাবারের পাত্রসমূহ আহারকারীর জন্য মাগফিরাত কামনায় মহান রবের দরবারে দু‘আ করে। ।(মুসলিম, হাদীস নং- ২০৩৩/ তিরমিযী, হাদীস নং- ১৮০৪/ তাবরানী আউসাত, হাদীস নং- ১৬৪৯) 

১৩. খানা খাওয়া শেষে হলে এই দু‘আ পড়াঃ الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِى أَطْعَمَنَا وَسَقَانَا وَجَعَلَنَا مُسْلِمِينَ. (আবু দাউদ, হাদীস নং-৩৮৫০) 

১৪. খাওয়া-দাওয়া শেষে আগে দস্তরখানা উঠিয়ে তারপর নিজের উঠতে হবে। (ইবনে মাজাহ, হাদীস নং- ৩২৯৫)

 ১৫/. খাদ্য খেয়ে পুনরায় উভয় হাত ধোয়া।(তিরমিযী, হাদীস নং- ১৮৪৬) 

১৬. কুলি করে ভালোভাবে মুখ পরিষ্কার করা।(বুখারী শরীফ, হাদীস নং- ৫৪৫৫) 

১৭. খানার শুরুতে বিসমিল্লাহ পড়তে ভুলে গেলে স্মরণ হওয়ার সাথে সাথে খানার মাঝে এই দু‘আ পড়াঃ بِسْمِ اللهِ اَوَّلَهُ وَآخِرَهْ (আবু দাউদ, হাদীস নং- ৩৭৬৭) 

১৮/. একত্রে খানা খাওয়ার সময় একেবারে চুপ থাকা মাকরূহ। এজন্য খাওয়ার ফাঁকে ফাঁকে পরস্পরে ভাল কথা আলোচনা করা। কিন্তু যে ধরনের কথা বা সংবাদে মনের মধ্যে দুশ্চিন্তা বা ঘৃণার উদ্রেক হতে পারে, তা খানার সময় বলা একেবারেই উচিত নয় ।(বুখারী শরীফ, হাদীস নং- ৫৩৭৬) 

(সমাপ্ত)

এছাড়াও খাবার খাবারের সুন্নত আরো থাকতে পারে। আপনার জানা থাকলে কমেন্টস করে আমাদের জানাবেন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published.